ঢাকা: ২০১৯-০২-১৬ ৯:০৩

Khan Brothers Group

আইপিএলের পর সংবাদ মাধ্যমের সামনে মোস্তাফিজ

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০১:০৫ এএম, ১৪ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার

ছবি: সংগ্রহিত

ছবি: সংগ্রহিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: আইপিএলে খেলেতে গিয়ে বাঁ পায়ের বুড়ো আঙুলের চোটের কারণে আফগানিস্তান সিরিজে খেলতে পারেননি মোস্তাফিজুর রহমান। সামনে দীর্ঘ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। ক্যারিবিয়ানে কাটার-মাস্টারকে পাওয়া যাবে তো? আইপিএলের পর প্রথম সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হওয়া মোস্তাফিজও প্রশ্নটার ঠিকঠাক উত্তর দিতে পারেননি। গতকাল বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এই বাঁহাতি পেসারের সঙ্গে সাংবাদিকদের নেয়া সাক্ষাৎকারটি তুলে ধরা হলো।

প্রশ্ন: আপনার ইনজুরির এখন কী অবস্থা?
মোস্তাফিজ: এখন অনেক ভালো। তিন সপ্তাহ হয়ে গেছে, দিন দিন উন্নতি হচ্ছে। আশা করি, দ্রুত সুস্থ হয়ে যাবো।

প্রশ্ন: ঈদ বিরতিতে কি প্রস্তুতি চালিয়ে যাবেন?
মোস্তাফিজ: কয়েক দিনের গ্যাপ আছে। তবুও কিছু প্রোগ্রাম দিয়েছে, ওটা করতে হবে। ডাক্তার ছুটি কাটিয়ে আসার পর আবার দেখবেন।

প্রশ্ন: সেরে ওঠার ব্যাপারে আপনি কতটা আশাবাদী?
মোস্তাফিজ: সেরে ওঠার চেষ্টা করছি। যে সব প্রোগ্রাম দিয়েছে সেগুলো অনুসরণ করে যত দ্রুত সম্ভব কামব্যাক করতে চাই।

প্রশ্ন: ওয়েস্ট ইন্ডিজে টেস্ট সিরিজ হয়তো মিস করবেন। ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলতে আপনি কতটা আশাবাদী?
মোস্তাফিজ: এটা তো বলা যাচ্ছে না। সব আল্লাহর ইচ্ছা।

প্রশ্ন: ফিজিওর সঙ্গে কাজ করতে দেখলাম। কী নিয়ে কাজ করলেন?
মোস্তাফিজ: ওই যে রিহ্যাব।

প্রশ্ন: আইপিএলে খেলতে গিয়ে দুবার চোটে পড়েছেন। আগামীবার আইপিএলে খেলার ব্যাপারে নিশ্চয়ই চিন্তা ভাবনা করবেন?
মোস্তাফিজ: খেলতে গেলে এমন হয়। আমার কপালে ছিল বলেই এমন হয়েছে।

প্রশ্ন:  আপনাকে অনেক দিন ধরেই চোটের সঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে। আফসোস হয় না?
মোস্তাফিজ: আফসোস হওয়ারই কথা। সব খেলোয়াড়ই চায় ধারাবাহিক খেলে যেতে।

প্রশ্ন:  আপনার ক্ষেত্রে বার বার কেন এমন হয়? নিজের ব্যাপারে কি আপনি সচেতন নন?
মোস্তাফিজ: এখন আর কথা বলব না।

প্রশ্ন: বারবার যে চোটে পড়ছেন এ ব্যাপারে কিছু বলেন?
মোস্তাফিজ: কী করব বলেন! কেউ তো ইচ্ছে করে পড়ে না। চেষ্টা তো করি সব সময়। ইনজুরি হলে তো কিছু করার নেই।

প্রশ্ন: আপনার স্লোয়ার-কাটারে আগের চেয়ে ধার কিছুটা কমেছে। কী কারণে?
মোস্তাফিজ: অনেক সময় দিয়েছি। এবার ভাগলাম!

প্রশ্ন:  ঈদের ছুটিতে আপনার পরিকল্পনা কী?
মোস্তাফিজ: অনেকদিন পর বাড়িতে যাচ্ছি। বাবা-মা, পরিবারের সবার সঙ্গে থাকতে পারবো। টেস্ট দলে থাকতে পারলে খুব ভালো লাগতো। এখন শুধু পরিবার নিয়ে থাকতে হবে।

ও/র