ঢাকা: ২০১৯-০৩-২১ ২১:৪৬

Khan Brothers Group

আমরা খুবই ভাগ্যবান ছিলাম: মুশফিক

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ১০:১৯ এএম, ১৫ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার | আপডেট: ১১:০৪ এএম, ১৫ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ক্রীড়া ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল নূরতে জাম্বারে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীদের হামলার ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা। অনুশীলনের পর জুমার নামাজ আদায় করতে ওই মসজিদে যাচ্ছিলেন ক্রিকেটাররা।

ঘটনার পর টাইগার উইকেটকিপার কাম ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

মুশফিক লিখেন, ক্রাইস্টচার্চে মসজিদের গোলাগুলি থেকে আল্লাহ আমাদের রক্ষা করেছেন। আমরা খুবই ভাগ্যবান ছিলাম। আল্লাহকে ধন্যবাদ। আমরা ঘটনার খুব কাছে ছিলাম এবং এই জিনিসগুলো আর অনুভব করতে চাই না। আমাদের জন্য প্রার্থনা করবেন।

শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুর পৌণে ২টায় ক্রিস্টচার্চ শহরের হেজলে পার্ক ডিস্ট্রিকের ডিন অ্যাভিনিউতে অবস্থিত ওই মসজিদে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় পত্রিকার বরাত দিয়ে জানা যায় বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা যখন মসজিদে প্রবেশ করতে যাচ্ছিল তখন একজন মহিলা তাদের মসজিদের ভেতরে বন্দুকধারীদের অবস্থানের কথা জানায়।

ঘটনাস্থলে থাকা ইএসপিএন ক্রিকইনফো’র বাংলাদেশ করেসপন্ডেন্ট মোহাম্মদ ইসাম টুইটে লিখেন, হেগলি পার্কের খুব কাছেই একটি মসজিদে বন্দুকধারীর হামলা থেকে বেঁচে গিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা। তারা হেগলি পার্কের পেছন দিয়ে ওভাল মাঠে ফিরেছেন।

টুইটের সঙ্গে একটি ভিডিও-ও শেয়ার করেছেন ইসাম। তাতে দেখা যায়, বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা ওই পার্কের ভেতর দিয়ে নিরাপদে ফিরছেন। এসময় আশপাশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাড়ির শব্দ পাওয়া যাচ্ছিল। এটি যে একটি ভয়ংকর অভিজ্ঞতা, সেটিও নিজেদের মধ্যে আলোচনা করছিলেন ক্রিকেটাররা।

ক্রিকইনফো’র খবরে বলা হয়, পার্কের মধ্য দিয়ে হাঁটার সময় বাংলাদেশি খেলোয়াড়রা অন্য পথচারীদেরও ঘটনাস্থলের দিকে যেতে নিষেধ করেন। পরে তারা হেগলি ওভাল মাঠে ফিরে আসেন। সেখানে ড্রেসিং রুমের মধ্যেই আছেন তারা। দলের লিটন দাস ও নাঈম হাসান, কোচ স্টিভ রোডস এবং দলের বাকি কোচিং স্টাফ হোটেলে অবস্থান করছিলেন। তাদের হোটেলেই থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে ক্রাইস্টচার্চের হেগলি ওভাল মাঠে শনিবার (১৬ মার্চ) বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের তৃতীয় টেস্ট হওয়ার কথা রয়েছে। তবে এমতাবস্থায় শনিবার সিরিজের শেষ ম্যাচটি মাঠে গড়াবে কি-না সে ব্যাপারে এখনই কিছু জানাতে পারেনি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাব্যক্তিরা।

-জেডসি