ঢাকা: ২০১৮-০৬-২৩ ২১:৩২

Khan Brothers Group

কক্সবাজারে পর্যটক আকর্ষণে হোটেল ‌সী-ভিউ`র মিউজিক লাউঞ্জ

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০২:৫২ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০৩:১৮ পিএম, ৯ এপ্রিল ২০১৮ সোমবার

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

কক্সবাজার প্রতিনিধি: পর্যটন শহর কক্সবাজারে পর্যটকদের বিনোদন এর নতুন মাত্রা হিসেবে চালু হলো `সী-ভিউ কারাওকে অন` মিউজিক লাউঞ্জ।

সম্প্রতি হোটেল সী-ভিউ`র উদ্যোগে পর্যটকদের বিনোদনের নতুন মাধ্যম হিসেবে কক্সবাজারে চালু হয়েছে "সী-ভিউ কারাওকে অন" মিউজিক লাউঞ্জ। এখানে হোটেল অতিথি ছাড়াও অন্যান্য সকল পর্যটকদের জন্যেও আছে সঙ্গীতবিষয়ক সব বিনোদন ব্যবস্থা। পেশাদার সাউন্ডপ্রুফ স্টুডিও পরিবেশে মঞ্চ আদলে আলোকসজ্জা ও শব্দ নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিতে দেশি বিদেশী জনপ্রিয় সব গানের মিউজিকের সাথে নিজের কন্ঠেই পর্যটকেরা গাইতে পারবেন পছন্দের যত গান। দেয়ালে লাগানো স্ক্রিনে ভেসে উঠবে গানের কথা। বাংলা,হিন্দি,ইংরেজি গানসহ প্রায় ৭৫০০ গান ও শিল্পীর নামের তালিকা থেকে পছন্দের গান গাওয়ার পর স্কোর যাচাই এবং নিজের গাওয়া গান রেকর্ডিং এর ব্যবস্থা। থাকছে গিটার ,কিবোর্ডসহ অন্যান্য সংগীতযন্ত্র বাজানোর সুযোগ।

প্রসঙ্গত, বিশ্বের বৃহত্তম এই সমুদ্র সৈকতের সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ দেশি বিদেশী পর্যটকের সমাগম হলেও শুধুমাত্র সমুদ্র দর্শন ও সমুদ্র স্নান করা ছাড়া আক্ষরিক অর্থে বিনোদন এর আর কোন মাধ্যম শহরে নেই। পাঁচতারকা মানের হোটেলগুলোতে উচ্চবিত্তদের জন্য কিছু বিনোদনের আয়োজন থাকলেও মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্ত পর্যটকদের জন্য অন্য কোন ব্যবস্থা নেই। এছাড়া রাতে সৈকতের নিরাপত্তা বিধিনিষেধ সীমাবদ্ধতার কারণে সন্ধ্যার কিছু সময় পর হতেই সৈকতের পর্যটক সমাগম একেবারে সীমিত হয়ে আসে। এই সময়ে মূলত ঝিনুক মার্কেটগুলোতে ঘোরাফেরা,কেনাকাটা আর খাবারের দোকানগুলোতে বা হোটেল কক্ষে অলস সময় কাটানো ছাড়া আর কিছুই করার থাকেনা। সম্প্রতি শহরের হলিডে মোড়ে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মানের একটি `ফিশ একুরিয়াম` বা বিভিন্ন প্রজাতির বিরল সামুদ্রিক মাছ প্রদর্শনী কেন্দ্র চালু হলে তা পর্যটকদের আকৃষ্ট করে এবং প্রতিদিনই এখানে বিপুলসংখ্যক পর্যটকের সমাগম ঘটে।

একে