ঢাকা: ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ৯:৫৬

কলম্বিয়ায় থানায় বোমা হামলা, নিহত ৫

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০৪:০২ পিএম, ২৮ জানুয়ারি ২০১৮ রবিবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট


ডেস্ক রিপোর্ট: কলম্বিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় নগরী বারানকুইলারের একটি থানায় বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসময় কমপক্ষে পাঁচ পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ৪১ জন। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সম্ভবত মাদকবিরোধী ও সংঘবদ্ধ অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোয় প্রতিশোধ হিসেবে এ হামলা চালানো হয়েছে।

রবিবার সকালে বারানকুইলা শহরে কর্মকর্তারা তাদের অভিযানের কাগজপত্র গ্রহণের সময় থানার বাইরে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

হামলাকারীদের সম্পর্কে তথ্য জানাতে পুলিশ ১২ হাজার ৭০০ পাউন্ড পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

ধারণা করা হচ্ছে বোমাটি আগে থেকেই পেতে রাখা হয়েছিল। পরে দূর নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে এর বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

বারানকুইলারের পুলিশ কমান্ডার মারিয়ানো বোতেরো বলেন, কর্মকর্তারা সকালের সমাবেশের জন্য যখন জমায়েত হচ্ছিল ঠিক তখনই বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

পুলিশের এক সূত্র জানায়, বোমা বিস্ফোরণের সময় ঘটনাস্থলে ৪৯ পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন। এদের মধ্যে পাঁচ কর্মকর্তা নিহত এবং অপর ৪১ জন আহত হয়েছেন। নিহতদের বয়স ২৪-৩১ বছরের মধ্যে।

কলম্বিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেলের দপ্তর জানিয়েছে, এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে ৩১ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অ্যাটর্নি জেনারেল নেস্টর মার্টিনেজ বলেছেন, আমরা তার বিরুদ্ধে পাঁচ হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ আনব। এছাড়া তার বিরুদ্ধে  হত্যাচেষ্টা, সন্ত্রাসবাদ ও বিস্ফোরক ব্যবহারের অভিযোগ আনা হবে।

কলম্বিয়ার সংবাদপত্র এল তিয়েম্পো জানিয়েছে, পুলিশ স্টেশনের কাছে থাকা সন্দেহভাজন ওই হামলাকারীর কাছ থেকে রেডিও যন্ত্রপাতি পাওয়া গেছে।

পার্শ্ববর্তী ইকুয়েডোর সীমান্তের কাছে একটি নিরাপত্তাচৌকিতে একটি গাড়ী বোমা বিস্ফোরণের মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর হামলাটি চালানো হয়। দুটি হামলার মধ্যে কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

তবে হামলাগুলো এমন একসময় চালানো হল, যখন দেশটির প্রেসিডেন্ট জুয়ান ম্যানুয়েল সান্টোস দেশটির ৫০ বছর ধরে চলা সশস্ত্র সংঘাতের অবসান ঘটাতে চাইছেন। দেশটির অধিকাংশ সহিংস ঘটনাই মাদকপাচার সংক্রান্ত। সূত্র:এএফপি, বিবিসি।  

-জেডসি