ঢাকা: ২০১৯-০২-১৬ ৯:১১

Khan Brothers Group

বিয়েতে গায়ে হলুদের আবির্ভাব কিভাবে?

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০৭:০০ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

ডেস্ক রিপোর্ট: বিয়ের মৌসুম মানেই সাজগোজ আর আনুষ্ঠানিক বিভিন্ন আচার-ব্যবহারের একটি উৎসব। বিয়ের অন্যতম একটি রীতি ও অংশ হলো গায়ে হলুদ। কিন্তু জানেন কি, বিয়ের অনুষ্ঠানে গায়ে হলুদের প্রচলন কেন হলো?

বিয়ের রীতি অনুযায়ী, বিয়ের দিন সকালে হলুদ মেখে গোসল করেন বর-কনে। পুরনো দিনেও বিয়ের রীতিতে হলুদের প্রচলন ছিল। বিয়েতে হলুদ ব্যবহারের কারণ হিসাবে বিশেষজ্ঞরা কয়েকটি বিশেষ দিকের কথা বলে থাকেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আমাদের বর্তমান বিয়ের রীতি অনেকটাই মোঘল যুগ থেকে চলে আসছে। আগে নিয়ম ছিল হাতে সেলাই করা কাপড় পড়েই বিয়ে হতে হবে। পরে নূরজাহান জরির সুতার কাপড় পড়ায় বেনারসির প্রচলন শুরু হয়। তা দেখতে এতই সুন্দর ও আকর্ষণীয় ছিল যে, বিয়ের পোশাক হিসাবে হিন্দু-মুসলমান সকলেই এই পোশাক পড়তেন। হলুদের ব্যবহারের প্রচলন আসলে বেশ কিছু উপকারি দিকের কথা ভেবেই এসেছিল। সে কারণগুলো জেনে নিন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কাঁচা হলুদ প্রাকৃতিক ভাবে জীবাণুনাশক। হলুদ শরীরকে পরিষ্কার করে ও সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে। এছাড়াও শরীরে তাপের ভারসাম্য ঠিক রাখে ও শরীরকে ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করে। বিয়ের দিন এমনিই অনেক কাজের চাপ থাকে।

তাই বিয়ের সময় বর-কনের শরীর ভাল রাখতে, অসুখ বা সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে হলুদ মাখানোর রীতি তৈরি হয়। এমন কি বিয়ের ক্ষেত্রে হলুদকে শুভ ও মঙ্গল বলেও মনে করেন অনেকেই।

আবার হলুদ ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় এবং ত্বকের অন্য সমস্যাও কমায়। হলুদের অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল ক্ষমতা যেকোনো ত্বকের জন্যই উপকারি। তাই বিয়ের দিনের কড়া মেকআপেও ত্বকের ক্ষতি করতে দেয় না।

মূলত এই কারণগুলোর জন্যই হলুদকে বিয়ের অন্যতম উপাদান হিসাবে ধরা হয়। রীতি অনুযায়ী তার প্রয়োগ ও নিয়ম আলাদা করা হয়।

ও/র