ঢাকা: ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:৩৩

রিজার্ভ চুরি নিয়ে নিউইয়র্কে মামলা হচ্ছে: অর্থমন্ত্রী

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০৪:১৪ পিএম, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ০১:২১ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি


নিজস্ব প্রতিবদেক: চুরি হওয়া রিজার্ভের বাকি অর্থ ফেরত আনতে ফিলিপিন্সের রিজল কমার্সিয়াল ব্যাংকের (আরসিবিসি) বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে বাংলাদেশ ব্যাংক মামলা করছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।  

আজ বুধবার সচিবালয়ে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, রিজার্ভ চুরি নিয়ে নিউইয়র্কে মামলা হবে। এই মামলার বিষয়ে আইনজীবীরা আলোচনা করছেন। আমরা আশা করছি, এই মামলায় ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক সহযোগিতা করবে।

পরে বাংলাদেশ ব্যাংকে সংবাদ সম্মেলন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহা. রাজী হাসান বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের আইনজীবী আজমালুল হক কিউসি বলেন, আগামী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে মামলা করতেই হবে। এক্ষেত্রে ফিলিপাইন সরকারের সঙ্গে যেন বাংলাদেশের সম্পর্ক নষ্ট না হয়, সে জন্য নিউইয়র্কে মামলা দায়ের করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেখানে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক ও সুইফটের সঙ্গে কথা বলে মামলা করা হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি সূত্রে জানা গেছে, চুরি যাওয়া অর্থ ফেরত আনতে ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশনের (আরসিবিসি) বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংক মামলা করবে। এছাড়া এই ঘটনার সঙ্গে ১০ থেকে ১২টি দেশের প্রতিষ্ঠান জড়িত থাকার সন্দেহে তাদেরকেও মামলায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

২০১৬ সালের প্রথম দিকে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে সুইফট কোডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রায় ১০১ মিলিয়ন ডলার চুরি করে দুর্বৃত্তরা। এর মধ্যে ২ কোটি ডলার চলে যায় শ্রীলঙ্কা এবং ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চলে যায় ফিলিপাইনের জুয়ার আসরে।

চুরি যাওয়া অর্থের মধ্যে এখন পর্যন্ত ফেরত এসেছে ১ কোটি ৪৫ লাখ ৪০ হাজার ডলার। বাকি ৬ কোটি ৬৪ লাখ ডলার এখনো ফেরত পাওয়া যায়নি।

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় সরকার গঠিত ফরাস উদ্দিনের নেতৃত্বে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট এখনও প্রকাশ করা হয়নি।

জেডসি