ঢাকা: ২০১৮-০৮-১৫ ৮:০৬

Khan Brothers Group

সালমান খান দোষী সাব্যস্ত

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০১:১৮ পিএম, ৫ এপ্রিল ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০১:৪১ পিএম, ৫ এপ্রিল ২০১৮ বৃহস্পতিবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট


বিনোদন ডেস্ক: কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। তার এক থেকে ছয় বছর কারাদণ্ড হতে পারে। একই অভিযোগ থেকে অভিনেতা সাইফ আলী খান ও অভিনেত্রী টাবু, সোনালী বেন্দ্রে ও নীলমকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত।

যোধপুর আদালতের পক্ষ থেকে এই মামলায় বৃহস্পতিবার দোষী সাব্যস্ত করা হয় সালমানকে। বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনের ৯-এর ধারায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

বৃহস্পতিবার যোদপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেব কুমার খাতরি এ রায় ঘোষণা করেন।

সালমানের আইনজীবীরা এখন তার শাস্তি কমাতে আদালতের কাছে আবেদন করেছেন। যদি রায়ে সালমানের তিন বছরের কারাদণ্ডের শাস্তি হয়, তাকে তাৎক্ষণিকভাবে তার আইনজীবী একই আদালতে আপিল করতে পারবেন। তবে তার শাস্তি তিন বছরের বেশি হলে জামিনের জন্য তাকে উচ্চ আদালতে আবেদন করতে হবে।

মামলার রায় ঘোষণার সময় সালমান খান, সাইফ আলী খান, টাবু, সোনালি বেন্দ্রে ও নীলমও উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সালমানের দুই বোন আলভিরা ও অর্পিতাও ছিলেন।

এই অপরাধে সালমানের সাজা কী হবে, তা আজই ঘোষণা করা হবে। এই মুহূর্তে যোধপুর আদালতে সালমানের আইনজীবীরা সাজার মেয়াদ নিয়ে বিচারকের সঙ্গে আলোচনা করছেন।

১৯৯৮ সালে ‘হম সাথ সাথ হ্যায়’ ছবির শুটিংয়ে গিয়ে যোদপুরের কঙ্কানি গ্রামের কাছে দুটি কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেন সালমান খান।

সালমান যখন জিপসি গাড়ি চালিয়ে শিকারে যান, তখন সাইফ আলী খান, টাবু, সোনালি বেন্দ্রে ও নীলমও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনার পর সালমানসহ অন্য অভিনেতাদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ) আইনের ৫১ নম্বর ধারায় মামলা করা হয়। এ ছাড়া বেআইনিভাবে জঙ্গলে ঢোকার অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৯ নম্বর ধারাতেও মামলা করা হয়।

গত ২৮ মার্চ নিম্নআদালতে কৃষ্ণসার মামলার চূড়ান্ত শুনানি শেষ হয়। তখন সালমান খানের আইনজীবী এইচএম সারস্বতের দাবি করেন, সরকারি কৌঁসুলি অভিযোগের সাপেক্ষে প্রমাণ সংগ্রহ করতেই পারেননি। মামলা সাজাতে ভুয়া সাক্ষী দাঁড় করিয়েছেন। এমনকি বন্দুকের গুলিতেই যে কৃষ্ণসার দুটির মৃত্যু হয়েছিল, তাও প্রমাণ করতে পারেননি।

এর আগে ২০০৬ সালে এ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল সালমানকে। কয়েকদিন জেলেও ছিলেন এ অভিনেতা। কিন্তু পরবর্তী সময়ে জামিনে মুক্তি পান তিনি। একই বছর সালমানকে দেয়া আদালতের সাজা স্থগিত করেন রাজস্থান আদালত। ২০১৬ সালে রাজস্থান উচ্চ আদালত এ মামলা থেকে এই অভিনেতাকে অব্যাহতি দেন। আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়, সালমানের বন্দুকের গুলিতেই যে হরিণগুলোর মৃত্যু হয়েছে তার কোনো প্রমাণ মেলেনি। কিন্তু রাজস্থান সরকার এ বিষয়ে আপিল করলে সালমানকে পুনরায় আদালত থেকে নোটিশ পাঠানো হয়।

Hip's Wear Fashion