ঢাকা: ২০১৮-১১-১৬ ১৫:১৬

Khan Brothers Group

টি-টোয়েন্টিতেও নেই সাকিব

এশিয়ানমেইল২৪.কম

প্রকাশিত : ০৩:৫১ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:২০ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সোমবার


ক্রীড়া প্রতিবেদক: সাকিব আল হাসানকে রেখেই প্রথম টি-টোয়েন্টি জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছিল বিসিবি। তবে আজ রবিবার টি-টোয়েন্টির বাংলাদেশ অধিনায়ক জানালেন, পুরো সিরিজেই তার খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

চোটে আক্রান্ত হয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে খেলতে পারেননি সাকিব আল হাসান। পরে টেস্ট সিরিজেও দলের বাইরে থাকতে হয় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে। চোট থেকে কিছুটা সেরে ওঠায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টির জন্য শনিবার ঘোষিত ১৫ সদস্যের দলে অধিনায়ক হিসেবে রাখা হয়েছিল তাকে। কিন্তু সাকিব জানালেন, এখনই ফেরা হচ্ছে না মাঠে।

সাকিব বলেন, টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার সম্ভাবনা বোধহয় আমার নেই। ডাক্তার বলেছেন যে কমপক্ষে আরও দুই সপ্তাহ সময় লাগবে। তার মানে এই সিরিজ খেলা হচ্ছে না। দুই সপ্তাহের ভেতরে সুস্থ হয়ে, আবার রিহ্যাব করে পুরো অনুশীলন করে শ্রীলঙ্কাতে আমাদের যে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে হবে, সেটাতে খেলতে পারব।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, আমরা আগেই বুঝতে পেরেছিলাম, প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে পারবে না সাকিব। শেষ পর্যন্ত তাই হয়েছে। ওর চোট এখনো পুরোপুরি সেরে ওঠেনি। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে আবার পরীক্ষা করে দেখা হবে সে খেলতে পারবে কি না। পুরোপুরি ফিট হলেই সিলেটে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে পারবে সে।

মাঠের বাইরে থাকার সময়টা ভীষণ পোড়াচ্ছে জানিয়ে সাকিব বলেন, পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে মাঠে থাকতে না পারলে তো খারাপ লাগেই। এটার ওপর আমার হাতও নেই যে কিছু করতে পারব। তবে একজন খেলোয়াড় যদি খেলতে না পারে, সেই অনুভূতি বলে বোঝানোর নয়।

বাংলাদেশ টেস্টে সিরিজ হারের হতাশা না লুকিয়ে এই অলরাউন্ডার বলেন, টেস্টে আমাদের সবারই লক্ষ্য ছিল জয়। অবশ্যই একটু হতাশ। আমার মনে হয় ক্রিকেটাররা সবাই হতাশ। কিন্তু ক্রিকেটে সবসময় চাওয়ামত ফল আসে না। সাকিবের বিশ্বাস, টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে ঘুরে দাঁড়াবে দল। নিজের বিশ্বাসের পক্ষে যুক্তিও দেখালেন তিনি।  

সাকিব বলেন, আমি খুবই আশাবাদী যে টি-টোয়েন্টি দিয়ে ঘুরে দাঁড়াব। এখানে একটা ওভারই খেলা বদলে দিতে পারে। টি-টোয়েন্টিতে কেউ ফেভারিট হয়ে নামে না। আয়ারল্যান্ডের সাথে অস্ট্রেলিয়া বা ভারত যদি খেলে, তাও ফেভারিট না। টি-টোয়েন্টির মজাটাই এখানে। আমি বলব এখানে কেউ ফেভারিট না, যারা ভাল খেলবে তারাই জিতবে।

সাকিবের অনুপস্থিতিতে টেস্ট সিরিজে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন মাহমুদউল্লাহ। এবার টি-টোয়েন্টিতে কে অধিনায়ক থাকবেন, সেটা এখনো জানা যায়নি। এ ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক বলেন, বোর্ড এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে, কে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি হবে ১৫ ফেব্রুয়ারি। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে হবে ম্যাচটি। আর ১৮ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় ম্যাচ হবে সিলেটে।

সাকিব চোটে আক্রন্ত হন ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ফিল্ডিং করতে গিয়ে। বাঁ হাতের কনিষ্ঠা আঙুলে ব্যথা পান তিনি। আঙুল ফেটে যায় এবং সেলাই পর্যন্ত করাতে হয়েছিল। সাকিবের অনুপস্থিতিতে টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স খুব একটা ভালো হয়নি। চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট ড্র হলেও ঢাকায় দ্বিতীয় টেস্টে বাজেভাবে হেরে যায় বাংলাদেশ।

জেডসি